ঢাকা, শনিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭  ,
১৩:০১:৫২ জানুয়ারি  ১০, ২০১৭ - বিভাগ: রাজনীতি


‘উপজেলার নাম পরিবর্তন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’

Image

পিরোজপুর জেলার জিয়ানগর উপজেলার নাম পরিবর্তনকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। 

মঙ্গলবার সকালে নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেসব্রিফিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন। 

রিজভী বলেন, উপজেলার নাম পরিবর্তন করা সরকারের আগ্রাসী প্রতিহিংসার আরেকটি শিকারের ঘটনা। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে যে সমস্ত বীর সন্তানরা মাতৃভূমির জন্য লড়াই করেছেন তাদের নামে সড়ক-মহাসড়ক-স্থান-ভবন ইত্যাদির নামকরণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, কোলকাতার অনেক রাস্তাঘাটের নাম ইংরেজ সিভিলিয়ানদের নামে ছিল, স্বাধীনতার পর সেটি পরিবর্তন করে সেখানে কীর্তিমান স্বাধীনতা সংগ্রামীদের নাম দেয়া হয়েছে। এভাবে আমরা সেখানে দেখতে পাই-চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ থেকে শুরু করে বিধাননগরসহ নানা স্থানে স্বজাতির বরেণ্য দেশনায়ক, কবি-সাহিত্যিক-বিজ্ঞানী অথবা সমাজ সংস্কারকদের নাম। শুধুমাত্র বর্তমান বাংলাদেশ হচ্ছে পৃথিবীতে একটি ব্যতিক্রমী দেশ, যেখানে সরকারের দিন-রাত্রি কাটে হিংসা-বিদ্বেষ-আক্রোশ আর রাজনৈতিক প্রতিপক্ষদের দমনে।

বিএনপির এ নেতা বলেন, পিরোজপুর জেলাধীন জিয়ানগর উপজেলা থেকে জিয়ানগর নামটি বাদ দেওয়া আমাদের গৌরবোজ্জ্বল মুক্তিযুদ্ধ ও সকল মুক্তিযোদ্ধাদেরকেই অপমান করা। প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান তার আমলে জিয়ানগরে জলথানা প্রতিষ্ঠিত করেন এবং পরবর্তীতে এটিকে একটি পূর্ণাঙ্গ থানায় উন্নীত করেন। ২০০২ সালে সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার আমলে এটিকে উপজেলায় উন্নীত করেন, তখন জিয়ানগর নামকরণ করা হয়। শুধুমাত্র সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রয়াত জিয়াউর রহমানের নাম থাকার কারণেই এটি সরকারি আক্রমণের শিকার হলো। প্রতিহিংসা কত ভয়াবহ রূপ নিলে এধরনের সভ্যতা বিবর্জিত আক্রোশমূলক সিদ্ধান্ত নিতে পারে সরকার।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির পক্ষ থেকে আমি সরকারের এই প্রতিহিংসামূলক সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে জিয়ানগর নাম বদলের সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের জন্য আহবান জানাচ্ছি।

তিনি সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, জনগণের শাসন যদি কখনো কায়েম হয়, তখন যদি বর্তমান বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম, বঙ্গবন্ধু সেতু, বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার এসবের নাম পরিবর্তন করে পূর্বের নাম যদি বহাল করা হয় তাহলে তখন আপনাদের বক্তব্য কী হবে? আপনারা কি দেশটাকে চিরদিনের জন্য মৌরুসিপাট্টা করে নিয়েছেন। ভাবছেন ক্ষমতা আর কোনদিনই ছাড়তে হবে না ?

এ সময় দলের সিনিয়র নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, সোমবার (০৯ জানুয়ারি) মন্ত্রিপরিষদের সভায় পিরোজপুরের জিয়ানগর উপজেলার নাম পরিবর্তন করে ‘ইন্দুরকানী উপজেলা’ ঘোষণা করা হয়।



রাজনীতি'র অন্যান্য খবর

©সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি