ঢাকা, মঙ্গলবার ২২ আগস্ট ২০১৭  ,
১৫:৪৭:২২ জানুয়ারি  ১১, ২০১৭ - বিভাগ: ইসলাম


জামাতে নামাজ পড়ার গুরুত্ব

Image

আবু হোরায়রা (রাঃ) হইতে বর্ণিত আছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম শপথ করিয়া বলেন, আমার এরূপ ইচ্ছা হয় যে, আজানের পর কাহাকেও ইমাম বানাইয়া নামাজ আরম্ভ করিবার আদেশ দেই এবং আমি ঐ সমস্ত লোকদের বাড়ি খুঁজিয়া বাহির করি যাহারা নামাজের জামাতে শরিক হয় নাই এবং কাহারও দ্বারা জ্বালানি কাঠ আনাইয়া ঐ ব্যক্তিরা ঘরে থাকা অবস্থায় তাহাদের বাড়ি-ঘরে আগুন লাগাইয়া দেই। রাসুলুল্লাহ (সা.) ক্ষোভ প্রকাশ করিয়া বলেন, খোদার কসম বহু লোক এমনও আছে যে, সামান্য কিছু শিরনি পাওয়ার আশা থাকিলে তাহারা রাত্রিকালে এশার সময়ও মস্‌জিদে আসিতে কুণ্ঠিত হয় না। (কিন্তু জামাতের প্রতি ততটুকু আকৃষ্টও হয় না)।


বোখারী শরীফ - হাদিস নং- ৩৯১

আব্দুল্লাহ ইবনে (রাঃ) হইতে বর্ণিত আছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলিয়াছেন, জামাতের নামাজ একাকী নামাজ অপেক্ষা সাতাইশ গুণ বেশি সওয়াব রাখে।

বোখারী শরীফ - হাদিস নং- ৩৯২

জারীর ইবনে আব্দুল্লাহ (রাঃ) বর্ণনা করিয়াছেন, আমরা নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নিকট ছিলাম। একদা পূর্ণিমার রাতের চাঁদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করিয়া রাসূল (সা.) উপস্থিত সাহাবীগণকে বলিলেন, তোমরা (বেহেশতে যাইয়া ) আল্লাহ্‌ তা’আলাকে এইরূপ স্পষ্টরূপে দেখিতে পাইবে, যেমন এই পূর্ণিমার চাঁদকে দেখিতেছ- কোন প্রকার ভির ও কোলাহল ছাড়াই দেখিতে পাইবে। কিন্তু এই নিয়ামত হাসিলের জন্য সূর্য উদয়ের ও অস্তের পূর্ববর্তী (ফজর ও আসরের ) নামাজদ্বয়ের প্রতি সতর্ক দৃষ্টি রাখিতে হইবে।

বোখারী শরীফ - হাদিস নং- ৩৪০

আবু হোরায়রা (রাঃ) হইতে বর্ণিত আছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলিয়াছেন, যে ব্যক্তি সূর্যাস্তের পূর্বে আছরের নামাজের এক রাকাতের সময় পায় সে পূর্ণ নামাজ পড়িবে এবং যে ব্যক্তি সূর্যদয়ের পূর্বে ফজর নামাজের এক রাকাতের সময় পায় সে পূর্ণ ফজরের নামাজ আদায় করিবে।

বোখারী শরীফ - হাদিস নং- ৩৪২

আবু হোরায়রা (রাঃ) হইতে বর্ণিত আছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলিয়াছেন, একামত শুনিয়া ছোটাছুটি করিয়া আসিবে না- শান্তি, শৃঙ্খলা ও গাম্ভীর্যের সঙ্গে নামাজে আসিবে। (ইমামের সঙ্গে নামাজ) যতটুকু পাইবে পড়িবে। আর যাহা ছুটিয়া গিয়াছে উহা পরে পূরণ করিবে। ( অবশ্য একামতের পূর্বেই জামাত স্থলে উপস্থিত থাকা চাই)।

ইসলাম'র অন্যান্য খবর

©সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি