একটি অগ্নিকান্ড; কেড়ে নিলো পুরো পরিবার

0
14

২৭ ফেব্র‌ুয়ারি বৃহস্পতিবার। ভোর সাড়ে ৪টার দিকে আগুন লাগে দিলু রোডের একটি বাসভবনে। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় মারা যায় শিশু রুশদী ও তার মা জান্নাতুল ফেরদৌসী। আজ মারা গেলেন বাবা শহিদুল কিরমানিও। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে মারা যান রনি (৩৯)। ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক পার্থ শংকর পাল জানান, শহিদুলকে লাইফ সাপোর্ট রাখা হয়েছিল। তার শরীরের ৪৩ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। এ ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো পাঁচজনে।

এর আগে গতকাল রোববার সকালে মারা যান শহিদুলের স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌসী । আগুনে শ্বাসনালিসহ জান্নাতের শরীরের ৯৫ ভাগ পুড়ে গিয়েছিল। ছেলে মারা যায় অগ্নিকান্ডের দিনই। তিনতলার সিঁড়িতে রুশদীর লাশ পাওয়া যায়।

বৃহস্পতিবার ভোররাতে নিউ ইস্কাটনের দিলু রোডের আবাসিক এলাকার একটা পাঁচতলা ভবনে আগুন লাগে। পরে ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিটের এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। আগুনে পাঁচ বছরের শিশু এ কে এম রুশদীসহ ‘ক্ল্যাসিক ফ্যাশন’ নামের ওই বায়িং হাউসের কর্মচারী আবদুল কাদের (৪৫) ও ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী আফরিন জান্নাত ওরফে জ্যোতি (১৭) মারা যান। শহিদুল কিরমানি স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে ওই ভবনের তৃতীয় তলায় থাকতেন।

 

এডটিডে/এমএম