এক পরিবারের তিনজন হত্যার ঘটনায় মেয়ে-জামাতার বিরুদ্ধে মামলা

0
1

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর কদমতলীর মুরাদপুর এলাকায় স্বামী-স্ত্রী ও মেয়েকে হত্যার ঘটনায় একটি হত্যা মামলা করা হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত ১২টার দিকে মামলাটি করেন হত্যার শিকার মাসুদ রানার বড় ভাই শাখাওয়াত হোসেন।

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ওয়ারী বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) শাহ ইফতেখার আহামেদ রোববার সকালে এ তথ্য জানিয়েছেন।

ডিসি ইফতেখার আহামেদ বলেন, ‘বাবা-মা ও বোনকে হত্যার অভিযোগে মেয়ে মেহেজাবিন ও তাঁর স্বামী শফিকুল ইসলাম অরণ্যের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করা হয়েছে। মামলাটি করেন মাসুদ রানার বড় ভাই শাখাওয়াত হোসেন। মামলার বিবাদী মেহেজাবিনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। আর তাঁর স্বামী শফিকুল ইসলাম অরণ্য রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালে পুলিশি হেফাজতে চিকিৎসাধীন।’

পুলিশ বলছে, পারিবারিক কলহের জের ধরে গত শুক্রবার দিবাগত রাতে মেহজাবিন নামের এক নারী তাঁর বাবা মাসুদ রানা (৫০), মা মৌসুমী (৪৫) ও বোন জান্নাতুলকে (২০) হত্যা করেন। হত্যার শিকার প্রত্যেকের গলায় দাগ ছিল। পুলিশের ধারণা, প্রথমে ঘুমের ওষুধ বা নেশাজাতীয় কিছু খাওয়ানোর পর গলায় ফাঁস দিয়ে শ্বাসরোধ করে তাঁদের হত্যা করা হয়েছে।’

পুলিশের দাবি, শুক্রবার দিবাগত রাতে হত্যার পর জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন করে মেহেজাবিন বলেন, ‘আমি আমার বাবা-মা এবং বোনকে খুন করছি। আরও দুজন অসুস্থ আছে। তাদেরও খুন করতে পারি। নিজকেও খুন করে ফেলতে পারি। আপনারা আসেন। আমাকে ধরেন।’