তিস্তার পানি বিপদসীমার ৩১ সে.মি. ওপর দিয়ে প্রবাহিত

0
1

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

কয়েক দিনের বৃষ্টি ও উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তার পানি সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় ডালিয়া পয়েন্টে ৩১ সেন্টিমিন্টার বিপদসীমার অতিক্রম করেছে। ফলে লালমনিরহাটের তিস্তা তীরবর্তী এলাকার লোকজন নিম্নাঞ্চল পানি বেড়ে প্রায় বড় বন্যার আশঙ্কা করছেন।

সোমবার (২০ জুন) সবশেষে সন্ধ্যা ৬টা থেকে দেশের বৃহত্তম সেচ প্রকল্প তিস্তা ব্যারাজ ডালিয়া পয়েন্টে পানির প্রবাহ বিপদসীমার ৩১ সেন্টিমিন্টার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সোমবার ভোর থেকে পানি বৃদ্ধি হতে থাকে সকাল ৯টার পর থেকেই বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয় ।ফলে তিস্তা তীরবর্তী এলাকার গ্রাম গুলোতে পানি ঢুকতে শুরু করেছে। উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে থাকে।

এদিকে পানির প্রবাহ বেড়ে যাওয়ায় তিস্তা তীরবর্তী ৫ উপজেলার প্রায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। জেলার পাটগ্রাম উপজেলার দহগ্রাম, হাতীবান্ধার সানিয়াজান, গড্ডিমারী, সিন্দুর্না, পাটিকাপাড়া, ডাউয়াবাড়ী সিংগিমারী, কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী, কাকিনা, আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা, পলাশী, সদর উপজেলার খুনিয়াগাছ, রাজপুর, গোকুন্ডা ইউনিয়নের প্রায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

হঠাৎ তিস্তায় পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন এলাকায় পানি প্রবেশ করছে। এ বছর তিস্তার পানির কারণে এ জেলার লোকজন ক্ষতির মুখে পড়েন। জেলা প্রশাসন পানিবন্দি পরিবারের তালিকা করতে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদকে বলেছেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের ডালিয়া শাখার নির্বাহী প্রকৌশলী আসফা উদ দৌলা বলেন, উজানের পাহাড়ি ঢলে তিস্তার পানির প্রবাহ রাত থেকে বাড়তে থাকে। সোমবার সন্ধ্যা থেকে পানি বেড়েই চলেছে। ব্যারাজ রক্ষার্থে সবগুলো জলকপাট খুলে দেওয়া হয়েছে।

 

মন্তব্য

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন