ব্যারিকেড ভেঙে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে: রিজভী

0
3

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে আটক রাখা হয়েছে দাবি করে দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সব ব্যারিকেড ভেঙে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করাই এখন আমাদের মূল দায়িত্ব।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের উদ্যোগে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি রাখার প্রতিবাদে নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের উদ্যোগে এ মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

রিজভী বলেন, খালেদা জিয়া শুধু বিএনপির চেয়ারপারসন নয়, জনগণের অধিকারের জন্য জেল-জুলুম-টিয়ারসেলসহ সব নিপীড়ন-নির্যাতনকে বুকে ধারণ করে তিনি রাজপথে গণতন্ত্রের পতাকা উড্ডীন করেছেন। সেই মহান নেত্রীকে অন্যায়ভাবে আটক রাখা হয়েছে। কারণ নেত্রীকে ভয় পান শেখ হাসিনা। খালেদা জিয়া যদি বাইরে থাকেন তাহলে দিনের ভোট রাতে করতে পারতেন না। খালেদা জিয়া বাইরে থাকলে অবৈধ ভোট করতে পারতেন না।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, সব ব্যারিকেড ভেঙে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে সেই তাগুত বুকে আছে? সেই তাগুত নিয়ে রাস্তায় নেমে গণতন্ত্র উদ্ধার ও খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে।

বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপুর সভাপতিত্বে ও নিপুণ রায় চৌধুরীর সঞ্চালনায় এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, বিএনপির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেইন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল প্রমুখ।