সরকারের অপরাজনীতি এখন উন্মোচিত : রিজভী

0
0

নিজস্ব প্রতিবেদক
সরকারের ‘দমন-পীড়ন নীতি ও একদলীয় অপরাজনীতি’র কঠোর সমালোচনা করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘বর্তমান মিডনাইট সরকারের অপরাজনীতি এখন দেশে-বিদেশে উন্মোচিত। আর তাই ঘরে-বাইরে মুখ দেখাতে না পেরে সরকার বিরোধীদল তথা দেশের জনগণের বিরুদ্ধে চক্রান্তে মেতে উঠেছে।’
বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘সরকারের অবস্থা ভালো না। তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে নানা নাটক করছে। আবার নতুন করে গ্রেফতার, মামলা, হামলা, নিপীড়ন ও নিষ্ঠুর দমননীতি শুরু করেছে। জনগণের দৃষ্টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে নতুন নতুন ইস্যু তৈরি করছে। এর অংশ হিসেবে গত ৪ ফেব্রুয়ারি নড়াইলের এক আদালত একটি মিথ্যা মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানকে দুই বছরের কারাদ- দেয়। এরপর শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের অর্জিত বীরত্বসূচক ‘বীর উত্তম’ খেতাব ছিনতাই করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে সরকার।’
রিজভী বলেন, ‘দেশনেত্রীর বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারির ঘটনাটি কদর্য অমানবিকতা, নির্মমতা ও হিংস্রতার বহিঃপ্রকাশ। বেগম জিয়াকে মিথ্যা মামলায় তিন বছরের বেশি সময় বন্দি রেখে তার নামে পরোয়ানা জারি ইতিহাসের সকল বর্বর নির্যাতনকেও হার মানিয়েছে। আজ্ঞাবহ বিচার ব্যবস্থায় হাস্যকর ঘটনাও বটে।’
বিএনপির এ নেতা আরও বলেন, ‘দেশনেত্রীর বক্তব্য নিয়ে নড়াইলে এক মামলাবাজ তার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করলো। অথচ আমরা যদি আইনের ভিত্তিতেও বলি তাহলে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া ছাড়া কেউ কারো বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ ও মানহানির মামলা করতে পারেন না। কিন্তু সেখানে মামলা হলো, গ্রেফতারি পরোয়ানাও জারি করা হয়েছে দুই দফা। মুক্তিযোদ্ধার তালিকা এখনো যোগ-বিয়োগ হচ্ছে।’
সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।